E-Passport Fee

পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে ২০২৪?

নতুন পাসপোর্ট আবেদন করবেন বা পাসপোর্ট রি-ইস্যু করতে হবে ? তবে নতুন পাসপোর্ট করতে অথবা রি-ইস্যু করার ফি কত তা জানা নেয় ? আজকের পোস্টে আমরা নতুন পাসপোর্ট ফি (E Passport Fee) সম্পর্কে বিস্তারিত জানাব।

সরকারি বিভিন্ন কাজে অথবা বিদেশে যেতে হলে পাসপোর্ট এর প্রয়োজন হয়। বর্তমান সময়ে MRP পাসপোর্ট সেবা চালু ছিলো। তবে এখন আর MRP পাসপোর্ট চলে না। এখন শুধুমাত্র ই-পাসপোর্ট সেবা চালু আছে। নতুন ই-পাসপোর্ট করার আগে অবশ্যই পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে সে সম্পর্কে জানা থাকা প্রয়োজন। 

নতুন পাসপোর্ট এর আসল ফি জানা না থাকলে পাসপোর্ট দালাল থেকে করানোর ক্ষেত্রে প্রতারিত হতে পারেন। এই জন্য নতুন আবেদন এর জন্য প্রযোজ্য আসল ফি অবশ্যই জানা থাকা প্রয়োজন। 

আজকের পোস্টে আমরা সাধারণভাবে পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে এবং বিদেশ অর্থাৎ দূতাবাস থেকে পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে সে বিষয়ে বিস্তারিত জন্য। 

পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে ২০২৪?

আপনি বাংলাদেশ বাদেও বিদেশে থাকলেও বাংলাদেশী পাসপোর্ট করতে পারবেন। ৫ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ফি ৪,০২৫ টাকা। ৫ বছর মেয়াদি ৬৪ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ফি ৬,৩২৫ টাকা। ১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট ফি ৫,৭৫০ টাকা।

নিম্নে একজন বাংলাদেশী নাগরিকের ক্ষেত্রে পাসপোর্ট করার জন্য ১৫% ভ্যাট সহ প্রযোজ্য ফি এর একটি তালিকা দেওয়া হলো –

মেয়াদ পেইজ সাধারণ ডেলিভারি ফি জরুরি ডেলিভারি ফি  অতীব জরুরি ডেলিভারি ফি 
৫ বছর ৪৮ ৪০২৫ টাকা ৬৩২৫ টাকা ৮৬২৫ টাকা 
৫ বছর ৬৮৬৩২৫ টাকা ৮৬২৫ টাকা ১২০৭৫ টাকা 
১০ বছর ৪৮৫৭৫০ টাকা ৮০৫০ টাকা ১০৩৫০ টাকা 
১০ বছর ৬৮ ৮০৫০ টাকা ১০৩৫০ টাকা ১৩৮০০ টাকা 
E-Passport Fee List

নতুন পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে, 

  • সাধারণ =  Regular- ২১ কর্মদিবস এর মধ্যে হাতে পাবেন 
  • জরুরি = Express- ১০ কর্মদিবস এর মধ্যে হাতে পাবেন 
  • অতীব জরুরি = Super Express- ২ কর্মদিবস এর মধ্যে হাতে পাবেন   
আরও পড়ুন  Smart NID Card Server Copy Download - এনআইডি সার্ভার কপি ডাউনলোড [2024]

নতুন পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে ১৮ বছর বা ১৮ বছর এর কম বয়সী সকলে এবং ৬৫ বছর উর্ধ নাগরিকগণ শুধু ৫ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট করতে পারবে।

একই সাথে যদি অতীব জরুরি পাসপোর্ট প্রয়োজন হয় তাহলে প্রথমে পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে। নতুন পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে আরো মনে রাখবেন আপনি যদি সরকারি চাকরিজীবি হন এবং আপনার NOC অথবা PRL হয়ে থাকে তবে Regular পাসপোর্ট এর ক্ষেত্রে Express এবং Express ডেলিভারির ক্ষেত্রে Super Express ডেলিভারি পাবেন।

নতুন পাসপোর্ট করতে কী কী প্রয়োজন তা জানা নাও থাকতে পারে। এই বিষয়ে আর জানতে পড়তে পারেন – জানুন পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে 2024

বিদেশ (দূতাবাস) থেকে পাসপোর্ট করার আবেদন ফি 

কোনো বাংলাদেশী নাগরিকের বিদেশে অবস্থানরত অবস্থায় পাসপোর্ট এর পাসপোর্ট এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে অথবা পাসপোর্ট রি-ইস্যু করার প্রয়জন হলে বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে পাসপোর্ট রি-ইস্যু আবেদন করতে পারবে।

বিদেশে অবস্থানরত অবস্থায় বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে পাসপোর্ট করতে হতে পারে। এজন্য রি-ইস্যু ফি এর একটি তালিকা নিম্নে দেওয়া হলো –

মেয়াদ পেইজ সাধারণ ডেলিভারি ফি জরুরি ডেলিভারি ফি  
৫ বছর ৪৮ 100 USD150 USD
৫ বছর ৬৮150 USD200 USD
১০ বছর ৪৮125 USD175 USD
১০ বছর ৬৮ 175 USD225 USD 

বিদেশে অবস্থানরত শিক্ষার্তী বা শ্রমিকের পাসপোর্ট ফি (E-passport Fee)

বিদেশে অবস্থারত শ্রমিক এবং শিক্ষার্থিদের জন্য পাসপোর্ট রি-ইস্যু ফি সাধারণ থেকে অনেকটা কম। ফি এর একটি তালিকা নিম্নে দেওয়া হলো – 

মেয়াদ পেইজ সাধারণ ডেলিভারি ফি জরুরি ডেলিভারি ফি  
৫ বছর ৪৮ 30 USD45 USD
৫ বছর ৬৮150 USD200 USD
১০ বছর ৪৮50 USD75 USD
১০ বছর ৬৮ 175 USD225 USD

E-Passport Fee প্রদান 

বিভিন্ন ভাবে অনলাইনে আপনি আবেদনের জন্য প্রযোজ্য ফি পরিষদ করতে পারেন। বাংলাদেশের জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাঙ্কিং সার্ভিস বিকাশ এবং রকেট এর মাধমেও এই ফি পরিশোদ করা যায়। অন্য যে যে মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করা যায় তার একটি তালিকা নিম্নে দেওয়া হলো –

  • VISA
  • Master Card
  • American Express
  • Bkash
  • Nagad
  • Rocket 
  • Dmoney
  • Upay
  • Bank Asia
  • Ok Wallet
  • MBL Rainbow
  • Midland Bank
  • DBBL
  • AB Bank
  • UCB
  • City Bank
  • Bank EBL
  • Brack Bank
আরও পড়ুন  NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম 2024

উপরুক্ত তালিকায় উল্লিখিত মাধমে আপনি আপনার ই-পাসপোর্ট এর ফি পরিষদ করতে পারেন। প্রযোজ্য ফি পরিষদ করা সম্পূর্ণ হলে অবশ্যই পরিষদ রশিদ প্রয়োজনীয় অন্যান্ন কাগজপত্রের সাথে জমা দিতে হবে। 

শেষ কথা 

আশা করি আজকের পোস্টটি আপনার কাছে ভালো লেগেছে। আজকের পোস্টে আমরা আলোচনা করেছি,নতুন পাসপোর্ট আবেদন এবং রি-ইস্যু করতে কত টাকা লাগে।  আমরা নতুন পাসপোর্ট এবং পাসপোর্ট রি-ইস্যু ফি ও তা প্রদান সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি যা আপনাকে সহজেই পাসপোর্ট এর জন্য প্রযোজ্য ফি প্রদান করতে সাহায্য করবে। 

আপনি যদি পাসপোর্ট সম্পর্কে আরো নতুন পোস্ট করতে চান তাহলে ওয়েবসাইটটি বুক মার্ক করে রাখতে পারেন। এবং আপনি  আপনার মূল্যবান মতামত বা কোন প্রশ্ন থাকলে তা কমেন্টে শেয়ার করতে ভুলবেন না।  

FAQ’s

শিক্ষার্থিদের পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে ফি কি কম ?

জি হ্যা। শিক্ষার্তী এবং শ্রমিকদের জন্য প্রযোজ্য ফি সাধারণ এর থেকে কম। 

Bkash  এর মাধ্যমে E-Passport Fee প্রদান করা যায় ?

জি হ্যা। আপনি চাইলে bkash এর সাহায্যেও প্রযোজ্য ফি পরিষদ করতে পারবেন।

এখনো কি MRP পাসপোর্ট আবেদন করা যায় ?

এখন আর MRP পাসপোর্ট চলে না। এখন শুধুমাত্র ই-পাসপোর্ট সেবা চালু আছে।

পাসপোর্ট করার সর্বনিম্ন বয়স কত ?

যেকোনো বয়সেই পাসপোর্ট করা যাই। পাসপোর্ট এর জন্য নির্দিষ্ট বয়স লাগে না। 

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।